বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জিংক সমৃদ্ধ ধান চাষ করুন সুস্থ্যসবল জীবন গড়ুন দেওয়ানগঞ্জে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে গুড়িয়ে দেওয়া হয় ড্রেজার মেশিন  আলহাজ্ব কামরুল হাসান রিপন এর পিতা হাজী নুর মোহাম্মদ এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ। এক ঘন্টার জন্য সমাজ সেবা উপ পরিচালকের দায়িত্ব পালন করলো চা-শ্রমিকের মেয়ে অষ্টমণি লোহার রাজশাহী হাসপালে ৪ জনের মৃত্যু ২ নম্বর সাগরদাঁড়ী ইউনিয়নবাসির সেবক হতে ইচ্ছুক মোঃ শাহাদৎ হোসেন চাঁদপুর মতলব উত্তরের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা দেওয়ানগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ইউএনও এর মতবিনিময় সভা  দেওয়ানগঞ্জে কমিউনিটি ক্লিনিকের কর্মপরিকল্পনা প্রনয়ণ সভা সনমান্দী ইউপি’র ০২নং ওয়ার্ডে সাইফুল ইসলাম কে পুনরায় মেম্বার হিসাবে দেখতে চায় এলাকাবাসী। 
নোটিশ :

এমপি পাপুল এর চার বছরের জেল

এমপি পাপুলের চার বছর জেল
মানব ও অর্থ পাচার মামলায় কুয়েতের আদালতের রায়, ৫৩ কোটি ২০ লাখ টাকা জরিমানা
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

এমপি পাপুলের চার বছর জেল

অর্থ ও মানব পাচারের দায়ে কুয়েতে আটক থাকা লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলকে চার বছরের সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে দেশটির আদালত। পাশাপাশি ১ দশমিক ৯ মিলিয়ন কুয়েতি দিনার জরিমানা করা হয়েছে। এ অর্থদন্ড বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫৩ কোটি ২০ লাখ টাকার সমান। একই সঙ্গে পাপুলের সহযোগী কুয়েতের এক অ্যাটর্নি ও সর্বশেষ মধ্যস্থতাকারী মাজন আল-জারাহকেও একই সাজা দিয়ে তাদের বন্দী করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ মামলায় কুয়েতের সংসদ সদস্য সাদউন হাম্মাদ ও সাবেক সংসদ সদস্য সালাহ খোরশিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। গতকাল কুয়েতের বিচারপতি আবদুল্লাহ আল-ওথমানের আদালত এ রায় প্রদান করে। বাংলাদেশের কোনো সংসদ সদস্যকে এর আগে কখনই বিদেশের মাটিতে বিচারের মুখোমুখি হতে হয়নি।
লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য পাপুল ৬ জুন রাতে কুয়েতের মুশরিফ থেকে গ্রেফতার হন। মারাফি কুয়েতিয়া কোম্পানির অন্যতম মালিক পাপুল সেখানে বসবাস করতেন। পাচারের শিকার পাঁচ বাংলাদেশির অভিযোগের ভিত্তিতে পাপুলের বিরুদ্ধে অর্থ ও মানব পাচার এবং ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কর্মীদের শোষণের অভিযোগ আনে কুয়েতি প্রসিকিউশন। গ্রেফতার করে ১৭ দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে রাখা হয় কুয়েতের কেন্দ্রীয় কারাগারে।

গতকাল রায় ঘোষণার সময়ও এমপি পাপুল কারাগারেই ছিলেন। সাধারণ শ্রমিক হিসেবে কুয়েত গিয়ে বিশাল আর্থিক সাম্রাজ্য গড়া পাপুল ২০১৮ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তার মালিকানাধীন মারাফি কুয়েতিয়া কোম্পানি পরিচ্ছন্নতা কর্মী নেওয়ার কাজ করলেও কুয়েতে অন্যান্য ব্যবসার কাজও বাগিয়েছিলেন পাপুল। কুয়েতি কর্মকর্তাদের কীভাবে কত টাকা ঘুষ দিয়েছেন সে বিষয়ে রিমান্ডে বিস্তারিত তথ্য দিয়েছেন পাপুল; যা প্রসিকিউটরদের বরাতে প্রকাশ করছে স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম। সেখানে নাম আসায় কুয়েতের দুই এমপির বিরুদ্ধেও পাপুলকে বেআইনি কাজে সহযোগিতা ও অর্থ পাচারে জড়িত থাকার আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনা হয়। মামলার তদন্তের সময় অভিযুক্ত হিসেবে ১৩ জনের নাম উঠে আসে। এর মধ্য থেকে চারজনকে তদন্তকালে বাদ দেওয়া হয়। এর আগে গালফ নিউজের খবরে বলা হয়েছিল, ‘জেনারেল ট্রেডিং অ্যান্ড কন্ট্রাক্টিং’ নামক লাইসেন্স ছিল পাপুলের; যার মাধ্যমে শিশুদের খেলনা থেকে শুরু করে অ্যানটিক কার্পেটের ব্যবসাও তিনি করতে পারেন। পাপুল ও তার কোম্পানির ব্যাংক হিসাব ইতিমধ্যে জব্দ করেছেন কুয়েত কর্তৃপক্ষ। ইংরেজি দৈনিক আরব টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, অর্থ ও মানব পাচারে সহযোগিতার জন্য কুয়েতের জাতীয় পরিষদের দুই সদস্যকে বড় অঙ্কের অর্থ ঘুষ দেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন পাপুল।
খবরে বলা হয়, এমপি সাদুন হাম্মাদ আল-ওতাইবি ও সালাহ আবদুলরেদা খুরশিদকে ৫ লাখ ৭০ হাজার কুয়েতি দিনার বা ১৫ কোটি ৭০ লাখ ৬৮ হাজার টাকা ঘুষ দেন পাপুল। এর মধ্যে আর্থিক লেনদেন ও বাণিজ্যিক কাজে সহযোগিতার জন্য সাদুন হাম্মাদকে দেন ২ লাখ কুয়েতি দিনার। এক সিরীয় মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে সাদুন হাম্মাদের দক্ষিণ সুরার বাসায় নগদ ৫০ হাজার দিনার পৌঁছে দেওয়া হয়। বাকি দেড় লাখ দিনার দেওয়া হয় চেকের মাধ্যমে। আ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১